আগামী ১৩ ই নভেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হতে যাচ্ছে “বিনিময়”

নিউজ ডেস্ক : ইতিমধ্যেই যারা রেজিষ্ট্রেশন করে ফেলেছেন আপনাদেরকে অভিনন্দন আপনি আপনা পছন্দমতো ভার্চুয়াল আইডি পেয়ে গেছেন। যারা রেজিষ্ট্রেশন করতে গিয়ে ইরর মেসেজ পাচ্ছেন তাদের বিচলিত হওয়ার কিছু নেই। রেজিস্ট্রেশন হলো বিনিময়ের প্রথম ধাপ যেখানে ভার্চুয়াল আইডি দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে।

 

-বিজ্ঞাপন-

ভার্চুয়াল আইডি কি? 

রেজিস্ট্রেশন করতে আপনাকে পছন্দমতো ভার্চুয়াল আইডি দিতে হবে যে আইডি দিয়ে বিনিময় থেকে লেনদেন করবেন। উদাহরণ স্বরুপ সোনালী ব্যাংকের গ্রাহক “X” ভার্চুয়াল আইডি [email protected] তে “Y” এখন বিকাশ বা রকেট বা এমক্যাশ বা অন্য কোন ব্যাংকের  গ্রাহক “Y” ভার্চুয়াল আইডি [email protected] তে লেনদেন করতে পারবেন।

 

রেজিষ্ট্রেশনের সময় সবুজ টিক চিহ্নযুক্ত ফিল্ডগুলো অপশনাল, না দিলেও সমস্যা নেই। কারো কারো এড্রেস ফিল্ডে ডাটা লোডেড দেখাতে পারে সেক্ষেত্রে সেটাই রাখতে পারেন বা আপডেটও করতে পারেন।

 

ভার্চুয়াল আইডি, ইমেইল, পিন দেয়ার পর আপনার ওয়ালেট ডাটায় চোখ বুলিয়ে নিয়ে সাবমিট করুন। ওয়ালেটের মতো বিনিময়ের জন্যও পিন দিন। সবকিছু ঠিক থাকলে রেজিষ্ট্রেশন হয়ে যাবে। বিনিময়ে রেজিস্ট্রেশন বা ফান্ড ট্রান্সফার সকল ক্ষেত্রে আপনার ফোনের লোকেশন অন রাখুন না হলে বিনিময় পিন দেয়ার পর এরর আসতে পারে।

 

রেজিষ্ট্রেশন করার সময় যদি None of the accounts certified by FI বা এ জাতীয় এরর আসে তাহলে আপনার ওয়ালেট ইনফরমেশন সিবিএসের সাথে আপডেট নেই। সংশ্লিষ্ট শাখায় যোগাযোগ করে সিবিএসের সাথে মিল রেখে আপনার ওয়ালেটের এনআইডি বা স্মার্ট কার্ড বা জন্মতারিখ আপডেট করে নিতে হবে।

 

ডিরেক্ট পে বা ফান্ড ট্রান্সফারে আপনার ওয়ালেট থেকে  টাকা ডেবিট হবে তাই ওয়ালেটে পর্যাপ্ত ব্যালেন্স না থাকলে ওয়ালেটে ব্যালেন্স এড করে নেয়া লাগতে পারে।

 

আপনি সোনালী ই-ওয়ালেট(অথবা যেকোন ওয়ালেট ইত্যাদি ইত্যাদি) থেকে বিনিময়ে রেজিস্ট্রেশন করেছেন এখন বিকাশে কি আরেকটি ভার্চুয়াল আইডি দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করবেন?  উত্তর হলো বিকাশ বা অন্যদের অ্যাপ থেকেও রেজিষ্ট্রেশন অপশনে যাবেন তবে ভার্চুয়াল আইডিটা আগেরটাই দিবেন।

 

এনআইডি, মোবাইল নাম্বার দিয়ে যে রেজিস্ট্রেশন বিনিময়ে একবার হয়ে গেছে পুনরায় একই এনআইডি, মোবাইল নাম্বার দিয়ে নতুন ভার্চুয়াল আইডি হবে না। সেক্ষেত্রে ভার্চুয়াল আইডিতে বিকাশের একাউন্টটি ডিফল্ট একাউন্ট হয়ে এড হয়ে যাবে।তখন কেউ আপনার ভিআইডিতে টাকা পাঠালে বিকাশের একাউন্টে যাবে।

 

এখন আবার সোনালী তে টাকা ক্রেডিট করতে চাইলে সোনালী ই-ওয়ালেটের বিনিময় এর ডিফল্ট একাউন্ট মেনু থেকে আপনাকে আবার আপনার ওয়ালেট একাউন্টটি ডিফল্ট করে নিতে হবে।

 

আপনার সোনালী ওয়ালেটে থেকে আপনারই বিকাশে লেনদেন করবেন? এই মুহুর্তে পারবেন না তবে শীঘ্রই চালু হবে “এলিয়াস” ট্রানজেকশন। তখন নিজেরই এক একাউন্ট থেকে আরেক একাউন্টে এলিয়াস দিয়ে অনায়াসে ট্রানজেকশন করতে পারবেন।

 

আরটিপি একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত এক্সেপ্ট বা রিজেক্ট করা যায়। বর্তমানে এর সময় ৩০ মিনিট তবে বাংলাদেশ ব্যাংক চাইলে যেকোন সময় কম বেশি করতে পারে একটা সময় পর আরটিপি এক্সপায়ার হয়ে যায়।

 

এক ডিভাইসে রেজিষ্ট্রেশন করার পর অন্য ডিভাইস থেকে বিনিময় এ লেনদেন করতে চাইলে নতুন ডিভাইসটি “ডিভাইস রেজিষ্ট্রেশন” মেনু থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করে নিতে হবে। শীঘ্রই বিনিময়ে আরো নতুন সেবা পর্যায়ক্রমে যুক্ত হবে।